• বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ০৯:৩৬ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ
কৃষি জমির মাটি কাটার ঘটনায় বিচার বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ দেড় বছরেও চালু হয়নি বিশেষায়িত শিশু হাসপাতালের কার্যক্রম শ্রম আইন নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র টালবাহানা করছে: প্রতিমন্ত্রী কারিগরির সনদ বাণিজ্য: জিজ্ঞাসাবাদে দায় এড়ানোর চেষ্টা সাবেক চেয়ারম্যানের বাংলাদেশ থেকে আরও কর্মী নিতে কাতারের প্রতি আহ্বান রাষ্ট্রপতির ফরিদপুরে ১৫ জনের মৃত্যু: অপেশাদার লাইসেন্সে ১৩ বছর ধরে বাস চালাচ্ছিলেন চালক বেনজীরের দুর্নীতির অভিযোগ অনুসন্ধানের অগ্রগতি প্রতিবেদন চেয়েছেন হাইকোর্ট পাট পণ্যের উন্নয়ন ও বিপণনে সমন্বিত পথনকশা প্রণয়ন করা হবে: পাটমন্ত্রী কক্সবাজারে অপহরণের ২৬ ঘণ্টা পর পল্লী চিকিৎসক মুক্ত বান্দরবানের তিন উপজেলায় ভোট স্থগিত : ইসি সচিব

ভূমিদস্যুদের আগ্রাসনের বিরুদ্ধে কার্যক্রম চলমান: মেয়র তাপস

Reporter Name / ৫৭ Time View
Update : বুধবার, ৪ জানুয়ারি, ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক :
ভূমিদস্যুদের আগ্রাসনের বিরুদ্ধে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) কার্যক্রম চলমান থাকবে বলে জানিয়েছেন ঢাদসিক মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস। আজ বুধবার সকালে ঢাকা-চট্টগ্রাম হাইওয়ে সংলগ্ন খালের বাৎসরিক পরিষ্কার কার্যক্রমের উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস। শেখ তাপস বলেন, নর্দমাগুলো ঢাকা ওয়াসার কাছ থেকে নেওয়ার পর থেকে বার্ষিক সূচি করে বছরের প্রথম থেকেই (জানুয়ারি মাস থেকে) খালগুলো পরিষ্কারের কার্যক্রম হাতে নেওয়া হয়। এ বছরের সেই কার্যক্রম আজ (গতকাল বুধবার) থেকে শুরু করছি। কিন্তু খালের দখলদারিত্বের আগ্রাসন থেকে এখনো মুক্ত হতে পারিনি। দখল এবং ভূমিদস্যুদের যে আগ্রাসন, এসব কার্যক্রম আমাদের ব্যাহত করছে। আমরা প্রতিনিয়তই এর বিরুদ্ধে কাজ করে চলেছি। তাদের বিরুদ্ধে আমাদের অভিযান অব্যাহত। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মেয়র শেখ তাপস বলেন, আমরা তো যথাযথ জরিমানা করছি। কিন্তু তারপরও যারা ভূমিদস্য তারা নিবৃত্ত হয় না। যেখানেই যেটা অবৈধ দখল পাচ্ছি সেখানেই আমরা ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করছি। দখলমুক্ত করছি, জরিমানা করছি। দখলদারিত্বের বিরুদ্ধে অভিযান চলমান থাকবে জানিয়ে মেয়র শেখ তাপস বলেন, যেখানে আমরা দাঁড়িয়ে আছি, এখানকার দখলদারিত্ব সম্পর্কে আমরা পত্রিকার দেখেছিলাম। পত্রিকায় দেখার সাথে সাথেই আমরা কিন্তু পুরোটাই দখলমুক্ত করেছি। দখলমুক্ত করে খালের প্রবাহ আমরা নিশ্চিত করেছিলাম। কিন্তু আজকে যখন আবার মাত্র ছয় মাস পরে এখানে আসলাম, তখন দেখছি তারা এখানে স্থায়ীভাবে দখল করেছে। সুতরাং এটা অত্যন্ত দুঃখজনক। এসবের বিরুদ্ধে আমাদের প্রচেষ্টা, অভিযান চলমান থাকবে। পরে মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস ৩৯ ও ৪১ নম্বর ওয়ার্ডে গণশৌচাগার, ৪০ নম্বর ওয়ার্ডে মেয়র সাদেক হোসেন খোকা খেলার মাঠ, ৪৪ নম্বর ওয়ার্ডে কিউলেক্স মশক নিধন কার্যক্রম এবং ৭১ নম্বর ওয়ার্ডের মুগদা এলাকায় প্রান্তিক জনগণের মাঝে কম্বল বিতরণ করেন। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান, সচিব আকরামুজ্জামান, পরিবহন মহাব্যবস্থাপক মো. হায়দর আলী, প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা রাসেল সাবরিন, সংশ্লিষ্ট অঞ্চলে আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category