• সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৭:০৬ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ
সিন্ডিকেটদের মদদ দিচ্ছে বিএনপি: কাদের পরজীবি দল হিসেবে জাপার প্রয়োজন আছে, গৃহপালিত নয়: জিএম কাদের দেশে কিশোর-তরুণদের প্রাণঘাতী যানে পরিণত হয়েছে মোটরবাইক চট্টগ্রাম নগর ছাত্রলীগের শীর্ষ পদ পেতে আগ্রহী ১৪০০ জন ভারতীয় বন বিভাগের সহায়তায় নিজ দেশে ফিরল দুই হাতি বান্দরবানে সড়ক নির্মাণে বালির পরিবর্তে পাহাড়ের মাটি ব্যবহার স্পেনের বিনিয়োগকারীদের বাংলাদেশের বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে বিনিয়োগের আহ্বান রাষ্ট্রপতির অ্যাপভিত্তিক রাইড শেয়ারিংয়ে অনীহা বেশিরভাগ মোটরসাইকেল চালকেরই কোটি টাকার অস্ত্রোপচার বাংলাদেশে করা হয়েছে বিনামূল্যে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী শিশু আয়ানের মৃত্যুর ঘটনা তদন্তে নতুন কমিটি গঠন হাইকোর্টের

সনিহা হত্যা মামলায় সপ্তম দফায় সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু

Reporter Name / ২৯৫ Time View
Update : সোমবার, ১৫ নভেম্বর, ২০২১

নজিস্ব প্রতবিদেক :
কক্সবাজাররে মরেনি ড্রাইভরে শামলাপুর এবপিএিন চকেপোস্টে পুলশিরে গুলতিে নহিত মজের (অব.) সনিহা হত্যা মামলার চলমান বচিারর্কাযরে সপ্তম দফা সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়ছে।ে আজ সোমবার সকাল সোয়া ১০টার দকিে এসআই কামাল হোসনেরে জবানবন্দি গ্রহণরে মধ্য দয়িে শুরু হয় সপ্তম দফার র্কাযক্রম। তনিি ছাড়াও আরও ৫ জন সাক্ষীর হাজরিা দয়িছেনে রাষ্ট্রপক্ষরে কৌঁসুলি অ্যাডভোকটে ফরদিুল আলম। এদরে মাঝে একজনকে রকিল সাক্ষী হসিবেে ডাকা হয়ছে।ে আগামী ১৭ নভম্বের র্পযন্ত চলবে সাক্ষ্যগ্রহণ। কামাল হোসনে ছাড়াও হাজরিা দয়ো অপর সাক্ষীরা হলনে, পরর্দিশক মানস বড়ুয়া, কনস্টবেল মোশারফ, ওসি এবএিম এস দৌহা, এএসপি জামলিুর ও রকিল সাক্ষী র্সাজন্টে আয়ূব। কক্সবাজার জলো ও দায়রা জজ আদালতরে বচিারক মোহাম্মদ ইসমাইলরে আদালতে এ সাক্ষ্যগ্রহণ শুরুর আগে অন্যদনিরে মতো ওসি প্রদীপ কুমারসহ ১৫ আসামকিে আদালতে আনা হয়। রাষ্ট্রপক্ষরে আইনজীবী ও কক্সবাজার জলো ও দায়রা জজ আদালতরে পাবলকি প্রসকিউিটর (পপি)ি অ্যাডভোকটে ফরদিুল আলম বলনে, মামলায় মোট ৮৩ জন সাক্ষীর মাঝে পঞ্চম দফায় মামলার ৩৫ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ সম্পন্ন হয়ছে।ে ৬ষ্ঠ দফায় ২৫ অক্টোবর থকেে ২৭ অক্টোবর র্পযন্ত সাক্ষ্যগ্রহণরে জন্য আদালত মামলার আরও ২৪ সাক্ষীকে সমন দনে। কন্তিু ১৮ জন উপস্থতি হওয়ায় তাদরে হাজরিা দয়ো হয়ছেে বলে উল্লখে করনে তনি।ি পপিি বলনে, চাঞ্চল্যকর এ মামলাটি দ্রুত সম্পন্ন করতে আমাদরে প্রচষ্টো থাকলওে আসামি পক্ষ সবসময় তাতে ব্যাঘাতরে চষ্টো চালাচ্ছনে। আসামরি আইনজীবীরা মামলায় সাক্ষ্য শষে হওয়া সাক্ষীকে র-িকলরে আবদেন করছনে বার বার। ১২ অক্টোবর দ্বতিীয় সাক্ষীকে র-িকল আবদেন দনে। এরপর আবার অপর সাক্ষী র্সাজন্টে আয়ূবকে র-িকল দয়ো হয়ছে।ে এটি মামলার গতশিীল র্কাযক্রমকে স্থবরি করার পায়তারা বলে উল্লখে করনে পপি।ি উল্লখ্যে, ২০২০ সালরে ৩১ জুলাই রাতে কক্সবাজার-টকেনাফ মরেনি ড্রাইভ সড়করে শামলাপুর চকেপোস্টে পুলশিরে গুলতিে নহিত হন মজের (অব.) সনিহা মো. রাশদে খান। তার সঙ্গে থাকা সাহদেুল ইসলাম সফিাতকে পুলশি গ্রপ্তোর কর।ে এরপর সনিহা যখোনে ছলিনে, সইে নীলমিা রসর্িোটে ঢুকে তার ভডিওি দলরে দুই সদস্য শপ্রিা দবেনাথ ও তাহসনি রফিাত নুরকে আটক কর।ে পরে তাহসনিকে ছড়েে দলিওে শপ্রিা ও সফিাতকে গ্রপ্তোর করে কারাগারে পাঠায় পুলশি। এই দুজন পরে জামনিে মুক্তি পান। সনিহা হত্যার ঘটনায় মোট চারটি মামলা হয়। ঘটনার পরপরই পুলশি বাদী হয়ে তনিটি মামলা কর।ে এর মধ্যে দুটি মামলা হয় টকেনাফ থানায়, একটি রামু থানায়। ঘটনার পাঁচ দনি পর র্অথাৎ ৫ আগস্ট কক্সবাজার আদালতে টকেনাফ থানার বরখাস্ত হওয়া ওসি প্রদীপ কুমার দাশ, বাহারছড়া তদন্ত কন্দ্রেরে পরর্দিশক লয়িাকত আলীসহ ৯ পুলশিরে বরিুদ্ধে হত্যা মামলা করনে সনিহার বড় বোন শারমনি শাহরয়িা ফরেদৌস। চারটি মামলা তদন্তরে দায়ত্বি পায় র‌্যাব। ওসি প্রদীপ কুমার দাশসহ ১৫ জনকে অভযিুক্ত করে আদালতে অভযিোগপত্র দনে তদন্ত র্কমর্কতা ও র‌্যাব-১৫ কক্সবাজাররে সনিয়ির সহকারী পুলশি সুপার মো. খায়রুল ইসলাম। অভযিোগপত্রে সনিহা হত্যাকা-কে একটি ‘পরকিল্পতি ঘটনা’ হসিবেে উল্লখে করা হয়। গত ২৭ জুন ওসি প্রদীপসহ ১৫ আসামরি বরিুদ্ধে মামলাটরি বচিাররে জন্য অভযিোগ গঠন করা হয়। এরপর গত ২৩ আগস্ট থকেে ২৫ আগস্ট র্পযন্ত প্রথম দফায় টানা তনিদনিে মামলার বাদী ও সনিহার বোন শারমনি শাহরয়িা ফরেদৌস এবং প্রত্যক্ষর্দশী সাহদেুল ইসলাম সফিাতরে সাক্ষ্যগ্রহণ ও জরো সম্পন্ন হয়ছেলি। এরপর ৬ দফা র্পযন্ত ৫৯ জনরে সাক্ষ্যগ্রহণ ও আসামি পক্ষরে আইনজীবীদরে জরো সম্পন্ন হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category