• শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ১১:৫৫ অপরাহ্ন
  • ই-পেপার
সর্বশেষ
সর্বোচ্চ আদালতকে পাশ কাটিয়ে সরকার কিছুই করবে না: আইনমন্ত্রী নাইজেরিয়ান চক্রের মাধ্যমে চট্টগ্রামে কোকেন পাচার কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের অপেক্ষা করতে বললেন ব্যারিস্টার সুমন পদ্মা সেতুর সুরক্ষায় নদী শাসনে ব্যয় বাড়ছে পিএসসির উপ-পরিচালক জাহাঙ্গীরসহ ৬ জনের রিমান্ড শুনানি পিছিয়েছে শৃঙ্খলা ভঙ্গের চেষ্টা করলে কঠোর ব্যবস্থা: ডিএমপি কমিশনার রপ্তানিতে বাংলাদেশ ব্যবহার করছে না রেল ট্রানজিট রাজাকারের পক্ষে স্লোগান সরকারবিরোধী নয়, রাষ্ট্রবিরোধী: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. ইউনূসসহ ১৪ জনের মামলায় সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়নি বঙ্গোপসাগরের জীববৈচিত্র্য নিয়ে প্রামাণ্যচিত্র-আলোকচিত্র প্রদর্শনী

১০ ডিসেম্বরকে সামনে রেখে বিএনপি রক্ষণাত্মক কেন, প্রশ্ন কাদেরের

Reporter Name / ৫৮ Time View
Update : শুক্রবার, ১৮ নভেম্বর, ২০২২

নিজস্ব প্রতিবেদক :
আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, শেখ হাসিনাকে ভয় দেখিয়ে কোনো লাভ নেই। বিএনপির মুখে রক্ষণাত্মক হলেও অন্তরে আক্রমণাত্মক শোডাউন। ১০ ডিসেম্বরকে সামনে রেখে বিএনপি এখন ডিফেন্সিভ কেন? এমন প্রশ্ন রেখে বিএনপি নেতাদের উদ্দেশে সেতুমন্ত্রী বলেন- মনে হচ্ছে যেন তারা ক্ষমতায় এসে গেছে, হাওয়া ভবন ফিরে পেলো, ঢাকার রাজপথে বিজয় মিছিল করবে- সরকারের পতন ঘটাবে, এমন অনেক কথা এর আগেও তোতাপাখির মতো বুলি আউলিয়ে গেছে। আজ শুক্রবার রাজধানীর ফার্মগেটস্থ কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশ (কেবিআই) অডিটোরিয়ামে বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের জাতীয় সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন সেতুমন্ত্রী। জিয়াউর রহমানই প্রতিহিংসার রাজনীতি সূচনা করেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, সারাদেশে শেখ হাসিনার উন্নয়ন-অর্জনে বিএনপির অন্তরজ¦ালা বাড়ছে। তারা দিনের বেলায় রাতের অন্ধকার দেখে, তাই সরকারের কোনো উন্নয়ন দেখতে পায় না। বাংলাদেশ কখনো অনিশ্চয়তার দিকে যাবে না, বিএনপি যেভাবে অনিশ্চয়তার দিকে চলছে তাতে বিএনপিই অনিশ্চয়তার দিকে যাচ্ছে। ওবায়দুল কাদের বলেন, এই তো ফিরে গেলাম ময়ূর সিংহাসনে, এ হাওয়া ভবন এসে গেল এ রকম একটা ভাব ছিল না? কোথায় গেল এ ভাব? এখন বলে কি আমাদের তো এ ধরনের কোনো চিন্তা ছিল না। তাহলে লাল কার্ড দেখিয়েছে কারা? ঢাকার রাজ পথে বিজয় মিছিল হবে। তাই না, বলছে না। বিজয় মিছিল করবেন সরকারের পতন ঘটিয়ে? এসব অনেক কথা বিএনপি নেতারা অবিরাম তোতা পাখির মতো বুলি আউড়িয়ে গেছে। তবে কি বিএনপি নতুন সুরে নতুন কৌশল করছে এমন প্রশ্ন করে ওবায়দুল কাদের বলেন, এখন ভিন্ন সুর, না জানি কি কৌশল। এখন মুখে বলছে আমাদের সমাবেশ হবে অনুমতি চাই। মুখে হলো রক্ষণাত্মক মনোভাব, আর অন্তরে হচ্ছে আক্রমণাত্মক শোডাউন। ফখরুল এখন বলেন অনিশ্চয়তার দিকে আমরা নিয়ে যাচ্ছি। আজকে আমরা জানি তাদের জ¦ালাটা কোথায়, তাদের বুকের ব্যথা, মনের জ¦ালা অন্তর্জালা। আমরা বুঝি কেন? এত চেষ্টার পরেও শেখ হাসিনা কেন বেঁচে আছে। তাদের প্রধান শত্রু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিএনপির প্রধানতম শত্রু হচ্ছে শেখ হাসিনা এবং তার বিরুদ্ধে চক্রান্ত। তাদের জ¦ালা কেন তিনি এতদিন ক্ষমতায় আছেন। জ¦ালা কেন? বুঝি। তারা (বিএনপি) যেভাবে যাচ্ছে, তারাই অনিশ্চয়তার দিকে যাচ্ছে। শেখ হাসিনাকে ভয় দেখিয়ে সরিয়ে ফেলবেন? ভয় দেখিয়ে সরিয়ে ফেলবেন? শেখ হাসিনা আল্লা ছাড়া কাউকে ভয় পায় না। আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, আমরা প্রস্তুত আছি, খেলা হবে, নির্বাচনে আসেন। ডিসেম্বরে খেলা হবে হবে, ভোট চুরির বিরুদ্ধে, দুর্নীতির বিরুদ্ধে, হাওয়া ভবনের বিরুদ্ধে দুঃশাসনের বিরুদ্ধে খেলা হবে, নির্বাচনে আসল খেলা। ফাইনাল খেলা হবে নির্বাচনে। নির্বাচনে আসুন তখন দেখা যাবে জনগণ কার সঙ্গে আছে। শেখ হাসিনা কত জনপ্রিয় নির্বাচন হলে আবারও টের পাবেন। বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের আহ্বায়ক শিরীন আহমেদের সভাপতিত্বে সম্মেলনে আরও বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ ও বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের নবনির্বাচিত সভাপতি হরুনুর রসীদ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category