• শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ০৮:৪২ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ
এমপি আজীমের হত্যাকারীরা প্রায় চিহ্নিত: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পত্রিকার প্রচার সংখ্যা জানতে নতুন ফর্মুলা নিয়ে কাজ করছি: তথ্য প্রতিমন্ত্রী চট্টগ্রাম বন্দরে কোকেন উদ্ধারের মামলার বিচার শেষ হয়নি ৯ বছরও বিচারপতি অপসারণের রিভিউ শুনানি ১১ জুলাই দক্ষ মানবসম্পদ তৈরিতে ইউসেফ কাজ করছে: স্পিকার দেশে চমৎকার ধর্মীয় সম্প্রীতি বিরাজ করছে: আইজিপি জিডিপি বৃদ্ধি পেয়েছে ৫.৮২ শতাংশ ফরিদপুরে দুই ভাইকে হত্যায় জড়িতদের বিশেষ ট্রাইব্যুনালে বিচারের দাবি এমপি আনারের হত্যাকা- দুঃখজনক, মর্মান্তিক, অনভিপ্রেত: পররাষ্ট্রমন্ত্রী আজকের যুদ্ধবিধ্বস্ত বিশ্বে বুদ্ধের বাণী অপরিহার্য: ধর্মমন্ত্রী

এসএসসি-সমমানে পাস ৯৩ শতাংশ, জিপিএ-৫ পেয়েছে ১ লাখ ৮৩ হাজার

Reporter Name / ৯৯ Time View
Update : বৃহস্পতিবার, ৩০ ডিসেম্বর, ২০২১

নিজস্ব প্রতিবেদক :
চলতি বছরের মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়েছে। পরীক্ষায় এবার গড়ে ৯৩ দশমিক ৫৮ শতাংশ পরীক্ষার্থী পাস করেছে। গতবার ছিল ৮২ দশমিক ৮৭ শতাংশ। সেই হিসাবে এবার পাসের হার বেড়েছে ১০ দশমিক ৭১ শতাংশ। আজ বৃহস্পতিবার বেলা পৌনে ১১টায় এ ফল প্রকাশ করা হয়। বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে বই বিতরণের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপর পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়। গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অনুষ্ঠানে যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে এসএসসি ও সমমানের ফল গ্রহণ করেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। করোনাভাইরাস মহামারির কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় নির্দিষ্ট সময়ের প্রায় ৯ মাস পর ১৪ নভেম্বর এসএসসি পরীক্ষা শুরু হয়। এর মাধ্যমে দেড় বছর পর প্রথম কোনো পাবলিক পরীক্ষায় বসে শিক্ষার্থীরা। সব বোর্ড মিলিয়ে এবার এসএসসি ও সমমানে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ২২ লাখ ২৭ হাজার ১১৩ জন। এর মধ্য উত্তীর্ণ হয়েছে ২০ লাখ ৯৬ হাজার ৫৪৬ জন। অন্যদিকে নয়টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের অধীনে শুধু এসএসসি পরীক্ষায় গড় পাসের হার ৯৪ দশমিক শূন্য ৮। ঢাকা বোর্ডে এবার পাসের হার ৯০ দশমিক ১৫ শতাংশ। এর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪৯ হাজার ৫০০ জন পরীক্ষার্থী। দিনাজপুর বোর্ডে পাস করেছে ৯৪ দশমিক ৮০ শতাংশ পরীক্ষার্থী। তাদের মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৭ হাজার ৫৭৮ জন। ময়মনসিংহ শিক্ষা বোর্ডে পাসের হার ৯৭ দশমিক ৫২ শতাংশ, জিপিএ-৫ পেয়েছে ১০ হাজার ৯২ জন। যশোর বোর্ডে পাসের হার ৯৩ দশমিক শূন্য ৯ শতাংশ, জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৬ হাজার ৪৬১ জন পরীক্ষার্থী। এ ছাড়া বরিশাল বোর্ডে পাসের হার ৯০ দশমিক ১৯ শতাংশ, জিপিএ-৫ পেয়েছে ১০ হাজার ২১৯ জন পরীক্ষার্থী। রাজশাহীতে ৯৪ দশমিক ৭১ শতাংশ, কুমিল্লায় ৯৬ দশমিক ২৭ শতাংশ, চট্টগ্রামে ৯১ দশমিক ১২ শতাংশ ও সিলেট বোর্ডে ৯৬ দশমিক ৭৮ শতাংশ শিক্ষার্থী পাস করেছে। অন্যদিকে মাদ্রাসা বোর্ডে পাসের হার ৯৩ দশমিক ২২ শতাংশ, জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৪ হাজার ১১৩ জন। এ ছাড়া কারিগরিতে পাসের হার ৮৮ দশমিক ৪৯ শতাংশ এবং সেখানে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৫ হাজার ১৮৭ জন পরীক্ষার্থী। পরীক্ষার্থীরা শিক্ষাবোর্ডের ওয়েবসাইট ও এসএমএসের মাধ্যমে ফল জানতে পারবে। এ ছাড়া স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রতিষ্ঠানে গিয়ে সবাইকে ফল দেখার অনুরোধ জানিয়েছে আন্তঃশিক্ষা বোর্ড।
জিপিএ ৫ পেয়েছে ১ লাখ ৮৩ হাজার ৩৪০ জন: চলতি বছর মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমান পরীক্ষায় মোট জিপিএ ৫ পেয়েছে ১ লাখ ৮৩ হাজার ৩৪০ জন পরীক্ষার্থী। এ ছাড়া এবার গড়ে ৯৩ দশমিক ৫৮ শতাংশ পরীক্ষার্থী পাস করেছে। জিপিএ ৫ প্রাপ্ত পরীক্ষার্থীদের মধ্যে ঢাকা বোর্ডে ৪৯ হাজার ৫৩০ জন, রাজশাহী বোর্ডে ২৭ হাজার ৭০৯ জন, কুমিল্লায় ১৪ হাজার ৬২৬ জন, যশোর বোর্ডে ১৬ হাজার ৪৬১ জন, চট্টগ্রামে ১২ হাজার ৭৯১ জন, বরিশালে ১০ হাজার ২১৯ জন, সিলেটে ৪ হাজার ৮৩৪ জন, দিনাজপুরে ১৭ হাজার ৫৭৮ জন, ময়মনসিংহ ১০ হাজার ৯২ জন পরীক্ষার্থী রয়েছেন। এ ছাড়া মাদ্রাসা বোর্ডে ১৪ হাজার ৩১৩ জন ও কারিগরিতে ৫ হাজার ১৮৭ জন পরীক্ষার্থী জিপিএ ৫ পান।
১৮ স্কুলের সবাই ফেল, শতভাগ পাস ৫৪৯৪টি: এবার এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় কোনো পরীক্ষার্থী পাস করতে পারেনি এমন প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা কমেছে। অন্যদিকে শতভাগ পাস করা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সংখ্যাও বেড়েছে। এবার ১৮টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কেউ পাস করতে পারেনি, গতবার এই সংখ্যা ছিল ১০৪টি। সেই হিসাবে এবার কোনো পরীক্ষার্থী পাস করতে পারেনি এমন প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা কমেছে ৮৬টি। অন্যদিকে এবার শতভাগ পাস করা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা পাঁচ হাজার ৪৯৪টি। গতবার তিন হাজার ২৩টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সবাই পাস করেছিল। অর্থাৎ শতভাগ পাস করা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা দুই হাজার ৪৭২টি বেড়েছে।
এবারও পাসের হারে এগিয়ে মেয়েরা: এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় পাসের হারে এবারও ছেলেদের তুলনায় এগিয়ে মেয়েরা। এবার মেয়েদের পাসের হার ৯৪ দশমিক ৫০ শতাংশ। ছেলেদের পাসের হার ৯২ দশমিক ৬৯ শতাংশ। মোট ছেলে পরীক্ষার্থী ছিল ১১ লাখ ৪২ হাজার ৯৪ জন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছে ১০ লাখ ৫৮ হাজার ৬২৮ জন। পাসের ৯২ দশমিক ৬৯ শতাংশ। আর মেয়ে পরীক্ষার্থী ছিল ১০ লাখ ৯৮ হাজার ৩০১ জন। উত্তীর্ণ হয়েছে ১০ লাখ ৩৭ হাজার ৯১৮ জন। পাসের হার ৯৪ দশমিক ৫০ শতাংশ। গত বছর ছাত্রদের পাসের হার ছিল ৮১ দশমিক ১৩ শতাংশ। ছাত্রীদের পাসের হার ছিল ৮৩ দশমিক ২৮ শতাংশ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category