• শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ০৭:০৩ পূর্বাহ্ন
  • ই-পেপার
সর্বশেষ
ঈদযাত্রায় বাড়তি ভাড়া আদায় করলে ব্যবস্থা বেনজীরের অঢেল সম্পদে হতবাক হাইকোর্ট তারেকসহ পলাতক আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে: প্রধানমন্ত্রী দুয়েক সময় আমাদের ট্রলার-টহল বোটে মিয়ানমারের গুলি লেগেছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ব্যবসায়িদের প্রতি নিয়ম-নীতি মেনে কার্যক্রম পরিচালনার আহ্বান রাষ্ট্রপতির সহকর্মীকে হত্যাকারী কনস্টেবল মানসিক ভারসাম্যহীন দাবি পরিবারের বিনামূল্যে সরকারি বাড়ি গৃহহীনদের আত্মমর্যাদা এনে দিয়েছে: প্রধানমন্ত্রী চেকিংয়ের জন্য গাড়ি থামানো চাঁদাবাজির অংশ নয়: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সারা দেশে ভোটার তালিকায় রোহিঙ্গা কতজন জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট বান্দরবান থেকে কেএনএফের ৩১ জনকে পাঠানো হলো চট্টগ্রাম কারাগারে

কামরাঙ্গীরচরে জজকোর্টের জুনিয়র আইনজীবীর বাসায় চুরি, আসামিকে জেলহাজতে প্রেরণ

Reporter Name / ১৮৭ Time View
Update : শনিবার, ১৮ জুন, ২০২২

নিজস্ব প্রতিবেদক :
রাজধানীর কামরাঙ্গীরচরে আইনজীবীর বাসায় দূর্র্ধষ চুরি সংঘটিত হয়েছে। সন্ধ্যার পর যখন বাসিন্দারা তাদের নিত্যদিনের কাজ নিয়ে ব্যস্ত, ঠিক তখনই চোররা মানুষ কিছু বুঝে ওঠার আগেই ডুপ্লিকেট চাবি দিয়ে তালা খুলে ঘরের টাকা, স্বর্নাংলকার, আসবাবপত্র ও ফ্রিজ চুরি করতে এসে হাতেনাতে ধরা পড়লেন। একজনকে আটক করে পুলিশে সোর্পদ করা হয়। থানায় মামলা হয়েছে।
সোমবার (১৩ জুন) রাত ৯.৩০ মিনিটে কামরাঙ্গীরচর গনিমিয়া মাদ্রাসা গলিতে বাড়িওয়ালা মাসুমের ৩ তলা বাড়ির নিচতলা ডানপাশে জজকোর্টের জুনিয়র আইনজীবী জিন্নাতুল ইসলাম বাবুর বাসায় দূর্র্ধষ চুরি সংঘটিত হয়।
চুরির বিষয়ে জিন্নাতুল ইসলাম বাবু বলেন, অফিস শেষ করে বাসায় এসে বিশ্রাম নিয়ে পেশাগত কাজে বাহিরে যাই। হঠাৎ করে রাত ৯ টার পর ছোটবোন কল করে বলল, ভাইয়া আপনার বাসায় দূর্র্ধষ চুরি হয়েছে। একজনকে আমি ধরেছি, আরেকজন পালিয়ে গেছেন। এরিমধ্যে, আমি দ্রুততম সময়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে দেখি ছোটবোন একজনকে শার্টের কলার চেপে ধরেছেন। তখন আমি ওই চোরকে রাগান্বিত হয়ে উত্তম মধ্যম দিতে গেলে ছোটবোনসহ আশেপাশের লোকজন আমাকে এই থেকে বিরত থাকার আহ্বান করেন।
তিনি বলেন, এরপর আমি থানায় কল করলে পুলিশ এসে ধৃত চোরকে ধরে নিয়ে যান। আটককৃত আসামির নাম মাহবুব আলী (৫০) পিতা- মোরতুজা আলী, মাতা+মৃত, হাবিবুন বিবি। কামরাঙ্গীরচর আঁচারওয়ালা ঘাট ( পানওয়ালা বাড়ির পেছনে, নুরজাহান মসজিদের পাশে) বসবাস করেন এই আসামি। তারপর, তাদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করি। আটককৃত আসামিকে আদালতে হাজির করা হয়েছে। মঙ্গলবার ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়েছে। এক দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। তবে, মামলা না করতে চোরদের পরিচিতজনেরা অনেক তদবির করেন।
কিন্তু আমি তাদেরকে বলেছি, আমি আইনের আশ্রয় নিয়েছি। এটি আইনি প্রক্রিয়া। আইন যা করবেন তা আমাদের সবাইকে মেনে নিতে হবে। এখানে আপনারা এ বিষয়ে আমাকে চাপাচাপি করলে ইহা আইন ভঙ্গের শামিল। তাছাড়া, এ বিষয়টি স্থানীয় কাউন্সিলর মোহাম্মদ হোসেন অবগত আছেন। এমনকি তিনিও এর বিচার হোক, এমনটাই দাবি করেছেন। তবে, কামরাঙ্গীরচর থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান মামলা দায়ের করার জন্য আমাকে যথেষ্ট আন্তরিকতা দেখিয়েছেন।
তিনি আরো বলেন, গত ২ বছর ধরে এই বাসায় থাকাকালীন সময়ে ৩/৪ বার চুরি সংঘটিত হয়। প্রত্যেক বারই প্রমাণের অভাবে আমি আইনি প্রক্রিয়ায় এগোতে পারিনি। এবার যেহেতু, হাতেনাতে ধরেছি, সেহেতু, আমি আইনি ব্যবস্থায় চুরির ঘটনা অবসান ঘটুক, তা চাই। আশাকরি, এলাকাবাসীসহ সবাই আমার এই উদ্যোগে একসাথে থাকবেন।
ছোটবোনের বরাত দিয়ে জুনিয়র আইনজীবী জিন্নাতুল ইসলাম বাবু বলেন, রাত আনুমানিক সোয়া ৯ টার দিকে ছোটবোন বাহির থেকে তার বাসায় ফিরে দেখে, ( ওই ভবনের তিন তলায় ছোটবোন স্বামীসহ বসবাস করে) আমার বাসার দরজা খুলে ২ জন ফ্রিজ ও আসবাবপত্র বাসা থেকে বের করতে উদ্যত হন। তখন, তারা আমার বোনকে বলেন, আমরা শারমিন আপার সাথে দেখা করতে এসেছি। তিনি এই বাসায় আসছেন কিনা আমরা দেখতে এসেছি।
আটককৃত ও পলাতক আসামী তারা দুজনেই আমার বাসা থেকে নগদ ৫০ হাজার টাকা, দুই ভরি ওজনের একটি স্বর্ণের ব্রেসলেট। যার বর্তমান বাজার মূল্য ১ লক্ষ ৪০ হাজার টাকা, ও ১৫ হাজার টাকা দামের একটি ঠওঠঙ মোবাইল সেট চুরি করে নিয়ে যায়। আমি আশাকরি আইনি প্রক্রিয়ায় আমার বাসা থেকে চুরি হওয়া এসব দামি মালামাল উদ্ধার হবে।
কিন্তু, তাদের এই কথায় আমার বোনের সন্দেহ হলে, সে নিজে বাসায় ঢুকে দেখল, সবকিছু ছড়ানো ছিটানো। ফ্রিজের সংযোগ বিচ্ছিন্ন, আসবাবপত্র জড়োসড়ো করা। তখন, সে চোর বলে চিৎকার দিলে মূলহোতা পালিয়ে যান। সহযোগী চোর দৌড়ে পালিয়ে যেতে চাইলে, ছোটবোন তাকে ধরতে সক্ষম হয়। সহযোগী চোর ফ্রিজ চুরি করার জন্য ব্যাটারিচালিত রিকশা নিয়ে এসেছেন। গনিমিয়া মাদ্রাসার সামনে রিকশা রেখে আমার বাসায় চুরি করতে যান। চুরিকৃত রিকশা জব্দ করা হয়েছে। আমি দেশের সম্মানজনক পেশায় জড়িত, এখানে চোরেরা বারবার এধরনের অপরাধ করবেন। এটি কোন সভ্য সমাজের মানুষ প্রত্যাশা করেননা


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category