• রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৬:৩৭ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ
সিন্ডিকেটদের মদদ দিচ্ছে বিএনপি: কাদের পরজীবি দল হিসেবে জাপার প্রয়োজন আছে, গৃহপালিত নয়: জিএম কাদের দেশে কিশোর-তরুণদের প্রাণঘাতী যানে পরিণত হয়েছে মোটরবাইক চট্টগ্রাম নগর ছাত্রলীগের শীর্ষ পদ পেতে আগ্রহী ১৪০০ জন ভারতীয় বন বিভাগের সহায়তায় নিজ দেশে ফিরল দুই হাতি বান্দরবানে সড়ক নির্মাণে বালির পরিবর্তে পাহাড়ের মাটি ব্যবহার স্পেনের বিনিয়োগকারীদের বাংলাদেশের বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে বিনিয়োগের আহ্বান রাষ্ট্রপতির অ্যাপভিত্তিক রাইড শেয়ারিংয়ে অনীহা বেশিরভাগ মোটরসাইকেল চালকেরই কোটি টাকার অস্ত্রোপচার বাংলাদেশে করা হয়েছে বিনামূল্যে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী শিশু আয়ানের মৃত্যুর ঘটনা তদন্তে নতুন কমিটি গঠন হাইকোর্টের

বাস থেকে আয়ের জন্য আর পাড়াপাড়ি করতে হবে না: মেয়র আতিক

Reporter Name / ৮২ Time View
Update : রবিবার, ২৬ ডিসেম্বর, ২০২১

নিজস্ব প্রতিবেদক :
ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেছেন, ঢাকায় ৯ হাজার ২৭টি বাস চলাচল করে। সন্ধ্যায় তারা বসেন প্রফিট কোথায়? আয়ের জন্য বাস চালকদের সঙ্গে পাড়াপাড়ি করেন। এজন্য অনেক প্রাণহানি ঘটে। দিন শেষে এখন আর আয়ের জন্য পাড়াপাড়ি করতে হবে না। আজ রোববার সকালে রাজধানীর ঘাটারচর থেকে কাঁচপুর পর্যন্ত বাসরুট রেশনালাইজেশনের আওতায় বাসরুট পাইলটিং-এর উদ্বোধনকালে তিনি এসব কথা বলেন। মেয়র বলেন, আমরা আজ নতুন করে একটি বাস রুট চালু করছি। সেটি হচ্ছে, ঘাটারচর থেকে কাঁচপুর পর্যন্ত ১৮ কিলোমিটার পথ। সেই পথে যে গাড়িগুলো চলবে। তাদেরকে সব নিয়মকানুন মেনে চলতে হবে। কোনো অভিযোগ থাকতে পারবে না। তিনি বলেন, সেখানে প্রতিটি বাসের কাগজপত্র ঠিক থাকবে। ড্রাইভারের লাইসেন্স থাকবে। প্রতিটি হেলপারের নির্ধারিত পোশাক থাকবে। এই পথের প্রতি কিলোমিটারের ভাড়া হবে দুই টাকা ১৫ পয়সা আর সর্বনিম্ন ভাড়া হবে ১০ টাকা। যাত্রীরা সুশৃঙ্খলভাবে বাসে উঠবেন। আমরা মনে করি, গণপরিবহনে শৃঙ্খলা ফিরবে। মেয়র বলেন, ‘যারা বাসরুট ফ্রেনজাই পরিচালনা করছি, তারা সবাই মিলে মনে করছি আগামীর ভবিষ্যৎকে একটি সুন্দর শহর উপহার দিতে সবার সহযোগিতা প্রয়োজন। এটি নতুন একটি ধারণা বা ফর্মুলা। আমরা এটি বাস্তবায়ন করে ছাড়বো। তিনি আরও বলেন, ঢাকাকে বাঁচাতে হলে সবার আগে প্রয়োজন এটিকে সচল করা। আমার কথা শুনে অনেকেই বলতে পারেন, ঢাকা কি আঁচল হয়ে আছে? আমি বলবো, না, ঢাকা অচল হয়নি। তবে কিছুকিছু ক্ষেত্রে স্থবির হয়ে আছে। এই শহরের সবচেয়ে বড় সমস্যার নাম ট্রাফিক জ্যাম। জ্যামে মানুষ নাকানি-চুবানি খাচ্ছেন। কর্মজীবনের হাজার হাজার ঘণ্টা নষ্ট হচ্ছে, এনার্জি নষ্ট হচ্ছে। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তৃতা করেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস, সংসদ সদস্য সাদেক খান, বিআরটিসি চেয়ারম্যান তাজুল ইসলাম, ডিটিসিএর নির্বাহী পরিচালক নিলীমা আক্তার, ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার এনায়েত উল্যাহ প্রমুখ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category